সভ্যতার বিলুপ্তি

আলতামাস পাশা লেখাটি পড়েছেন 823 জন পাঠক।
 স্তব্ধ হয়ে গেছে প্রকৃতি হঠাৎ
বাতাস ক্রমেই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে।
ঠিক এমনই একটা কিছু আসা করা হয়েছিল।
পাখি ও পশু, কীট ও পতঙ্গ অস্থির
এবং
কিংকর্তব্য বিমূঢ় হয়ে গেছে।

হঠাৎ যে প্রকৃতিতে এমনটি হবে তা কেউ ভাবতে পারেনি।
বাচ্চারা সব মায়ের কোলে কেঁদে উঠে।
বুড়োরা বলে উঠে এমনটি যে হবে তা আদি পুস্তকে লেখা ছিল।
প্রাচীন সভ্যতার শেষ চিহ্নগুলো মৌলবাদী হাতে একে একে ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যায়।
থাকে শুধু অনাগত ধ্বংসের আসন্ন আলামত।

মাঠে কাজ করছিল দু’জন; একজনকে নেওয়া হল, এবং অন্যজনকে ফেলে যাওয়া হল।
দু’জন নারী জাতা ঘুরাচ্ছিল তাদের একজনকে নেওয়া হল, অন্যজনকে ফেলে যাওয়া হল।

দেখতে দেখতে মাটি উগড়ে দেয় তার ভেতরের সব সম্পদ;
সমুদ্র উঠে ফুঁসে।
মাটির ভেতরের সব ছোট ও বড়, দামি এবং অদামি সম্পদ বেড়িয়ে আসে।
সমুদ্র উজার করে দেয় তার ভেতরের সব মাৎস্য সম্পদ, মুক্তা এবং এটা-সেটা।

তারপর একসময় রাত্রি ঘনায়,
সূর্য আর উঠে না। চির রাত্রির অন্ধকারে পৃথিবী বন্দি হয়ে যায়।
সভ্যতার শুরু অন্ধকার থেকেএবং
অন্ধকারেই তার বিলুপ্তি ঘটে।।

পাঠকের মন্তব্য


একই ধরনের লেখা, আপনার পছন্দ হতে পারে

bdjogajog