সৌম্য অবয়ব মানুষটা

বিস্তারিত পড়ুন

সৌম্য অবয়ব মানুষটা

আলতামাস পাশা

সৌম্য অবয়ব মানুষটা আর নেই! চৌয়ান্ন হাজার বর্গ মাইলের মানচিত্রের বুকে হেঁটে চলা এক সৌম্য অবয়ব মানুষ আর নেই আমাদের মাঝে। রাজশাহীর আম বন ছুঁয়ে কবে সে পা রাখে মহাসাগরের ওপারে ইমোরি বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ চত্বরে। একদিন আটলান্টার স্পর্শ নিয়ে ফিরে আসে তরুণ এই বাংলার শ্যামলিমায়। তারপর সময় গিয়েছে চলে ঘাস আর লতাপাতাদের মাঝে। রামধনু ওঠা পড়ন্ত বিকেলে, বৃষ্টিভেজা সকালের রোদে- সৌম্য অবয়ব মানুষটা কাজ করে চলে, জনপদে, লোকালয়ে, পাহাড়ে, সবুজে ঢাকা গ্রামে। লেখা হয় পাহাড়ী মানুষের কথা, লেখা হয়-‘ক্যান উই গেট অ্যালোন’? সম্প্রীতির লেবাস পরে কতদূর যাওয়া যাবে আর? সৌম্য অবয়ব মানুষটা অ...

সুবোধেরা কেন পালিয়ে বেড়াবে?

বিস্তারিত পড়ুন

সুবোধেরা কেন পালিয়ে বেড়াবে?

আলতামাস পাশা

অদ্ভূত কথাসব গুঞ্জুরিত হয়, সুবোধের আশেপাশে নেকড়েরা দন্তনখ বিকশিত করে; এ কেমন রাত্রি বল! ভোর যদি না হয়, সুর্যোদয় যদি না দেয় দেখা? প্রাণের স্পন্দন নেই. মৃত এক জনগোষ্ঠী হাহাকার করে। প্রতিদিন রাজপথে, বহূতল শপিংমলে অর্থহীন বাক্য বিনিময়; ‘সুবোধের’ কথা নাহি কয়!! কেন তবে ‘সুবোধেরা” পালিয়ে বেড়ায়?

বাজবে না কোনো সিম্ফনি

বিস্তারিত পড়ুন

বাজবে না কোনো সিম্ফনি

আলতামাস পাশা

আমার মৃত্যুর পরে বাজবে না কোনো সিম্ফনি হবেনা কোন শোকসভা; চ্যানেলগুলোতে যাবে না কোন ব্রেকিং নিউজ। অথচ আমিও তো ছিলাম সবার মাঝে, সবার জীবনে, অথবা কারো কারো জীবনের কেন্দ্র বিন্দু হয়ে। এই দেশে, এই শহরে অথবা এই পৃথিবীতে কিংবদন্তি হতে গেলে কী কী গুণাবলীর অধিকারী হতে হয় তা আমার জানা নেই; হয়তোবা তাই আমার কোন কিছুই হওয়া হলো না। আমি না হলাম চারণ কবি, না হলাম বাউল; হতে পারলাম না বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক, নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ, কবি অথবা সাহিত্যিক। হয়তো কিছুই হইনি আমি তবু মানুষ তো আমি! এ স্বপ্নেই যেন বিভোর থাকে মন। এ জীবনে মানুষ হতে পারার আনন্দ কেউ কেড়ে নিতে পারবে না। কর্পো...

নিকানামা

বিস্তারিত পড়ুন

নিকানামা

আলতামাস পাশা

নিকানামা একটি নিকানামা লেখা হবে; তাই প্রস্তুত, একটি ছেলে একটি মেয়ে্। কলম হাতে লিখতে তৈরি কাজি সাহেব- নিকানামা লিখবেন তিনি। অমুকের কন্যার সাথে শাদী মোবারক অমুকের পুত্রের; নতুন কাহিনীর শুরু হতে চলে; নিকানামা লেখা শেষে; বৈশাখী ঝড়ের পড়ে, আষাঢ়- শ্রাবণের অবিরাম বৃষ্টি শেষে, সাদা মেঘের ভেলায় ভাসা শরতের আশ্বিনে অথবা শিশির ঝরা হেমন্তের কোন বিকেলেও এভাবেই লেখা হবে হয়তোবা একটি কাবিননামা! অনন্তকাল ধরে। কী আশ্চর্য একুশ শতকের পৃথিবীতেও লেখা হয় নতুন নতুন কাবিননামা। লেখা হয়, লেখা হয় দ্রুত তা মুছে ফেলার জন্য।।

বোনের জন্য আকুতি

বিস্তারিত পড়ুন

বোনের জন্য আকুতি

আলতামাস পাশা

ও আমার বোন, আমার ভয় হচ্ছে; আমাদের দু’জনের জন্যে, বলতে গেলে সারা দেশ এবং এই পৃথিবীর সবার জন্যেই ভয় হচ্ছে। আমরা আটকা পড়েছি এমন একস্থানে, যেটা পূর্বের - পশ্চিমে, পৃথিবীর এমন এক স্থানে যেখানে আমাদের জন্য ভোরের আলো ফোটে খুব ধীরলয়ে। যেখানে ইতিমধ্যেই আমাদের ঘিরে ফেলেছে কুয়াশা.... আমাদের প্রার্থনার কুঞ্জগুলো অনেক আগেই আগুনের লেলিহান শিখায় ভস্মিভূত; আমাদের ছোট বোন ও ভাইটা বাবার হাত পরম নির্ভরতায় শেষ পর্যন্ত ধরে রাখতে গিয়েও পরাজিত; বলতে গেলে শতাব্দীর পর শতাব্দীব্যাপী আমরা পরাজিতই হয়ে চলেছি; পালিয়ে যেতে চাও? কোথায় পালাবে? নেকড়ের দলতো সবখানে! ওরা আমাদের পূবে, পশ্চিমে, এম...

bdjogajog