উৎসবের নামে উন্মাদনা বন্ধ হউক

বিস্তারিত পড়ুন

উৎসবের নামে উন্মাদনা বন্ধ হউক

আলতামাস পাশা

উৎসবের নামে উন্মাদনা বন্ধ হউক শেষ পর্যন্ত শিশু উমায়ের মারা গেল। তার চিকিৎসা চলছিল মিরপুর ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালে। মায়ের পেট থেকেই সে হৃদপিণ্ডে ছিদ্রসহ জন্ম নিয়েছিল। চিকিৎসাও চলছিলো। কিন্তু চারপাশের প্রতিকূল পরিবেশ তাকে অস্ত্রপ্রচার পর্যন্ত আর বেঁচে থাকতে দিল না। ঢাকা শহরব্যাপী আতশবাজি, পটকা ফাটানো প্রচন্ড শব্দে ভীত হয়ে পেনিক ডিজ অর্ডারে সে মারা গেছে। সম্প্রতি ২০২২ নববর্ষ উদযাপনের উন্মদনায় কোন নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে আমারা সারা ঢাকা শহরব্যাপী আতশবাজি, পটকা ফাটানো ও ফানুস উড়ানোর যে বাঁদর নাচ নাচি তা’কি আমাদের সংস্কৃতির অন্তর্ভুক্ত? বাঙালি ...

জীবনগাঁথা (ধারাবাহিক জীবন কাহিনী)

বিস্তারিত পড়ুন

জীবনগাঁথা (ধারাবাহিক জীবন কাহিনী)

আলতামাস পাশা

সময়টা দুনিয়াব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কিছুটা আগের। মাসের হিসেবে জানুয়ারি মাসের শেষ, ২০১৯ সাল। অন্যসব দিনের মতো আজও ভোর ৬টায় শাওনের ঘুম ভাঙ্গে। দ্রুত তৈরি হয়ে নেয় সে। পনোরো-বিশ মিনিটের মধ্যেই ক্লিন শেভড শাওন রাস্তায় নামে। অফিসগামী মানুষগুলো এগিয়ে যায় যার যার গন্তব্যেরপানে। শাওনের সেদিক থেকে অফিস যাবার বা ঠিক সময়ে পৌঁছনোর কেনো তাড়া নেই। সে হেঁটে চলে আপন মনে। তিনমাস পুরো হতে চললো জব ছাড়া। জব লেস মানুস সে এখন। এক ঘনিষ্ট বন্ধু তাকে বলে, ‘নিজেকে জব লেস বলবি না’, বরং বল ‘আই এম অ্যা জব সিকার’। একধরনের স্বাধীনতা, আবার সেই সাথে চরম অনিশ্চয়তা শাওনের মনে বিরূপ প্রভাব ফ...

টুনকি গেল কোনখানে

বিস্তারিত পড়ুন

টুনকি গেল কোনখানে

আলতামাস পাশা

টুনকি গেল কোনখানে (শিশু-কিশোর গল্পকাহিনী) টুনকিকে তোমরা সবাই চেন। সেই যে মায়ের ওপর অভিমান করে খাবার খুঁজতে বেরিয়ে কোনো খাবার না পেয়ে কাঁদতে কাঁদতে মায়ের কাছে ফিরে এসেছিল। খাবার নিয়ে আর বায়না ধরেনি কোনোদিন। কিন্তু তার দৌরাত্মি বেড়েছে বৈ কমেনি এক ফোঁটা। এইতো বুড়ো কচ্ছপ দাদুর সঙ্গে বাজি ধরে কী নাকালটাই না হল।সন্ধ্যাবেলা কাচুমাচু মুখে যখন বাড়ি ফিরে এল, মায়ের কাছে বকুনি তাকে খেতে হয়নি তেমন, কিন্তু সেদিন থেকে মা তাকে কড়া নজর রেখেছেন। কোথা্ও যাবার উপায় নেই। ঘরে বসে থেকে থেকে টুনকির মন হাঁফিয়ে উঠলো। বনে-বনে কত ফল ধরেছে। নিত্য নতুন মজার কাণ্ড ঘটছে, টুনকি তার কিছুই জানত...

পুষ্টিমানে ভরপুর সয়া নাগেট স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি

বিস্তারিত পড়ুন

পুষ্টিমানে ভরপুর সয়া নাগেট স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি

Shaon Ahmed

মানবদেহ কর্মক্ষমে এবং সুস্থভাবে চলার জন্য পুষ্টি প্রধান ভূমিকা পালন করে। অন্যভাবে বলতে গেলে এই পুষ্টির অভাবে দেখা দেয় নানা রোগ ব্যাধি। আশার কথা হচ্ছে কম খরচে ও সহজেই আমরা পুষ্টিকর নানা খাবার তৈরি করতে পারি। এক্ষেত্রে সয়া নাগেট ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এখানে দুটো রেসিপি দেয়া হল। আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে: সয়া রেড সস উপকরণ যা লাগবে: সয়ানাগেট ৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ২টি, রসুন বাটা ১ চা চামচ, হট অ্যান্ড সুইট টমাটো সস ১ টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া ১/২ চা চামচ, মৌরি বাটা ১/২ চা চামচ, ক্রিম ১ টেবিল চামচ, সয়াবিন তেল ১ টেবিল চামচ, মাখন ১/২ চা চামচ, লবণ আন্দাজ মতো, চিনি বা গুঁড় ১ চিমটি...

Authorship: Why a policy is so important

বিস্তারিত পড়ুন

Authorship: Why a policy is so important

আলতামাস পাশা

In the field of scientific research and dissemination publication is the only key to academic success and career development. In any case, authorship is a distinct way of giving credit to any intellectual scientific or non-scientific output. Authorship is important for academic recognition and institutional reputation (1). The appropriate recognition of authorship is an integral to the intellectual integrity of research carried out at any research institution. Authorship of research reports is a crucial issue in communicating science. It establishes accountability and responsibility for the information published anywhere. Not all the authors are aware of authorship criteria neither even in the developing countries nor in developed country. Thus, the importance of transparent authorship policy is well recognized among researchers all over the world, whether institutional or academic sphere (2). The lack of formal authorship policy or guideline sometimes raise conflict and could be regarded as a dilemma in disseminating research findings. Misappropriation of authorship may raise question to the integrity of authorship system. Therefore, Wagena rightly asked, “Why would we need guidelines for authorship if senior faculty behaved fairly?” It is quite understandable that the dishonest and unfair behavior of senior faculty regarding authorship has serious consequences for the development of a junior researchers (1). van Rooyen, et al. attempted to compare whether...

bdjogajog