রক্তাক্ত বর্ণমালা

বিস্তারিত পড়ুন

রক্তাক্ত বর্ণমালা

আলতামাস পাশা

বর্ণমালারা জীবন্ত হয়- বর্ণ পরিচয়ের বুক থেকে অ, আ, ই, ঈ প্রতিবাদে সোচ্চার; রাজপথে ঠাঁই নেয় প্রতিবাদী বর্ণমালা সব; মিছিলে মিছিলে ভঙ্গ করে শাসকের জারি করা আইন। রক্তাক্ত বর্ণমালা সব শহীদের নাম লিখে দেয় কৃষ্ণচূড়া পলাশের রক্তমাখা শাখায় শাখায়। পাখিদের করুণ গানে বিষণ্ণ হয় হিমমাখা ফাগুনের প্রথম প্রহর। এখনো আমরা জানি ‘মা’র মতো শুদ্ধ আর কোনো শব্দ নেই, যদি তার মর্যাদা দিতে পারি; বর্ণমালার মতো আর কোনো সুন্দর নেই, যদি মনের কথা বলতে পারি; ভাষার জ্ঞানের মতো আর কোনো আলো নেই, যদি তার প্রজ্ঞায় দীক্ষিত হতে পারি। নিজের ভাষার মতো আর কোনো পবিত্র কিছু নেই; জনপদে, লোকালয়ে অথবা পাহাড়ের স...

নস্টালজিয়া

বিস্তারিত পড়ুন

নস্টালজিয়া

আলতামাস পাশা

যেমন জড়িয়ে ছিলে ঘুম ঘুম বরফ মাসে। আমিও খুঁজি তোমায় আমার আশেপাশে। আবার সন্ধ্যাবেলায় ফিরে যাওয়া জাহাজ পাশে। বুকে পাথর রাখা মুখে মৃদু হাসি। যে যায় নিজের দেশে। আমরা স্রোত কুড়াতে চাই- যেভাবে জলদি হাত মেখেছে ভাত, নতুন আলুর খোসা এবং এই ভালোবাসা। আমার দেয়াল ঘড়ির কাটায় তুমি মিশে আছো!! অর্থহীন ভালোবাসায় শিহরিত!! দিনগুলোর মাঝে নতুন আলোর বিচ্ছুরণ, ধ্বনিত-প্রতিধ্বণিত হয় নিরাশার শব্দমালা।।

সাবাশ সুবোধ

বিস্তারিত পড়ুন

সাবাশ সুবোধ

আলতামাস পাশা

সুবোধ তুমি প্রভু ভক্ত কুকুর হও। মনটা ভিজিয়ে নাও নানকাটরা বিস্কুট আর চায়ে। তারপর জো হুকুম প্রভু বলে, স্লোগান দাও বিপ্লবের বিপক্ষে। তোমার মাথায় প্রভুরা হাত বুলিয়েে এটোঁ মাংসের হাড় ‍চিবাতে দিবে; তাতেই তুমি সন্তষ্ট থেকো; তা‘না হলে অরণ্যেও তোমার স্থান হবে না। রাস্তার কুকুরের অধিকার নিয়ে ঐ হাজার বলদ মিছিল করে; পোস্টারে সয়লাব সিটি কর্পোরেশনের দেয়াল। ‘হায় সুবোধ’ তোমার জন্য মিছিল কই? পোস্টার কই? নিজেই আকোঁ, একেঁ চলো দেয়াল লিখন- আর তোমার খোঁজে দিনভর ওরা শহর জুড়ে চালায় চিরুনি অভিযান।

সুবোধের পশ্চাদপসরণ

বিস্তারিত পড়ুন

সুবোধের পশ্চাদপসরণ

আলতামাস পাশা

‘সুবোধের পশ্চাদপসরণ আবারও; সুবোধের খোঁজে নেকড়েরা হানা দেয় শহরতলীগুলোতে; সুবোধেরা এখন পলায়নপর পিপীলিকায় পরিণত ; হঠাৎ বাসায় আঘাত; ছন্নছাড়া সব। পথ হারা সব, ছুটে চলে পথের সন্ধানে; পূর্ব দিগন্তে সূর্যোদয়ের প্রতিক্ষায় প্রতিক্ষায় ‘সুবোধেরা অপেক্ষামান। অথবা গুম হয়ে যায় হঠাৎ করে। ঘরে যারা ফিরে আসে, তারাও থাকে ঘাপটি মেরে।

হেমন্ত সকালে

বিস্তারিত পড়ুন

হেমন্ত সকালে

আলতামাস পাশা

অতপর পাতারা ঝরে পড়ে মৃত্তিকা বুকে; বাদামি হয়, সবুজ স্বপ্ন, বৃক্ষের পত্র সব, ঋতুর পরিবর্তন ঘটে , জগতে, সংসারে আকস্মিক কান্না ঝরে পড়ে, কাশফুল সাদা , মেঘ ছোঁয়ার আশায় তারপর, কার্তিকের ভোরে হেমন্তের শিশির জমে কচু পাতা কান্নায় টলটল করে৤

bdjogajog